আর মাত্র 500.00৳  টাকার বই কিনলেই পাচ্ছেন ফ্রি ডেলিভারি।
25%
ছাড়

থিওরি অফ রিলেটিভিটি

175.00৳  132.00৳ 

ফ্ল্যাপে লিখা কথাঃ
আজকালকার ছেলেমেয়েরা ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার আর ম্যানেজার হতে চায়। তারা বিজ্ঞান পড়ে কিন্তু বিজ্ঞানী হতে চায় না।
একশত বছর পূর্বে আইনস্টাইনের দেওয়া সূত্র আজকের সবার কাছে পরিচিত হয়ে উঠেছে এবং তা বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। সূত্রটির নাম-‘থিওরি অফ রিলেটিভিটি।’ আইনস্টাইনের সেই আলোড়ন সৃষ্টিকারী সূত্রটির সম্পর্কে জানতে হলে গণিতের কথাও জানতে হয়।
এই সময়ের জনপ্রিয় লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবাল বিজ্ঞানের এই জটিল ও কঠিন বিষয়কে নবম-দশম শ্রেণীর ছেলেমেয়েদের উপযোগী করে সহজ ও প্রাঞ্জল ভাষায় লিখেছেন। বইটি বিজ্ঞানের বিভিন্ন বিষয়ে নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের আগ্রহ সৃষ্টি করে তাদের সৃজনশীলতা, কল্পনাশক্তি এবং বিজ্ঞানমনস্নকতার বৃদ্ধি ঘটাবে।
বিজ্ঞানের সত্যিকারের কাহিনী যে বিজ্ঞানের কল্পকাহিনীর চেয়েও আরো রহস্যময় ও চমকপ্রদ-তা এই বইটি পাঠ করলে সহজেই বোঝা যাবে।

ভূমিকাঃ
একটা দেশকে গড়ে তুলতে হলে যেমন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, ম্যানেজার দরকার ঠিক সেরকম বিজ্ঞানীও দরকার। আমরা যখন ছোট ছিলাম তখন স্বপ্ন দেখতাম বড় হয়ে বিজ্ঞানী হব। বড় হয়ে যখন বিজ্ঞান নিয়ে একটুআধটু কাজ করতে পেরেছি তখন মনে হয়েছে এর চাইতে মজা আর কী হতে পারে? পৃথিবীতে যতরকম আনন্দ আছে তার মাঝে সবচেয়ে বেশি আনন্দ হতে গবেষণাতে। যারা সেটা করেছে তারা সেটা জানে। আমার কুব মায়া হয় যখন দেখি আজকালকার ছেলেমেয়েরা আর বিজ্ঞানী হতে চায় না-তারা শুধু ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার আর ম্যানেজার হতে চায়। মাঝে মাঝে দুই-একজন যখন বিজ্ঞানী হতে চায়, তাদের বাবা-মায়েরা তখন জোর করে তাদের ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার আর ম্যানেজার তৈরি করে ফেলেন। তাই আমাদের দেশে এখন চমৎকার ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার আর ম্যানেজার আছে, কিন্তু বিজ্ঞানীর খুব অভাব!
এই বইটা তাই লেখা হয়েছে বিজ্হানের জন্য একটু তৈরি করার উদ্দেশ্যে। পৃথিবীর ইতিহাসে বিজ্ঞানের যত আবিষ্কার হয়েছে তার মাঝে অন্যতম হচ্ছে থিওরি অফ রিলেটিভিটি এবং সবচেয়ে চমকপ্রদ ব্যাপার হচ্ছে স্কুলের গণিত জানলেই এই থিওরিটি বোঝা সম্ভব। কাজেই তেরো-চৌদ্দ বছরের ছেলেমেয়েদের লক্ষ করে আমি এই বইটি লিখেছি। কেউ যেন মনে না করে খুব কঠিন একটা জিনিস একটু ছেলেমানুষি করে এখানে বলা হয়েছে। এখানে একেবারে সত্যিকারের থিওরি অফ রিলেটিভিটির কথা বলা হয়েছে, কেউ যদি এটা পড়ে তার সবকিছু বোঝে, সে বুকে থাবা দিয়ে বলতে পারবে, “আমি থিওরি অফ রিলেটিভিটি জানি!”
কেউ যদি থিওরি অফ রিলেটিভিটি জানে শুধুমাত্র তা হলেই সে প্রথমবার অনুভব করতে পারবে আমাদের চারপাশেল জগৎ কত রহস্যময়। তার চাইতে বড় কথা, সে বুঝবে এই রহস্যের একটি পৃষ্ঠা তার জন্যে উন্মোচিত হয়েছে-সামনে আরো না জানি আরো কত পৃষ্ঠা উন্মোচিত হবার জন্য অপেক্ষা করছে।
এই বইটা পড়ে একটা ছেলে বা মেয়েও যদি ঠিক করে “আমি বড় হয়ে বিজ্ঞানী হব”, আমি তা হলে মনে করব আমার পরিশ্রমটা সার্থক হয়েছে!

মুহম্মদ জাফর ইকবাল
ঢাকা
২৬ ডিসেম্বর ২০০৭

সূচিপত্রঃ
১. রিলেটিভিটির শুরু
২. আপেক্ষিক সময়
৩. দৈর্ঘ্য সংকোচন
৪. লরেন্টজের রূপান্তর
৫. লরেন্টজের রূপান্তরের ব্যবহার
৬. আপেক্ষিক ভর
৭. স্থানাংকের রূপান্তর
৮. প্রশ্ন এবং উত্তর

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “থিওরি অফ রিলেটিভিটি”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top